UCC-র  যাত্রা যে ভাবে

৩৭ বছরের ঈর্ষান্বিত সফলতাকে সঙ্গে নিয়ে ৩৮ এর কোটায় পা রেখেছে UCC পরিবার ।

UCC-র প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান জনাব ড. এম. এ. হালিম পাটওয়ারী চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার ভাটরা গ্রামের কৃতি সন্তান । তিনি ১৯৮২-৮৩ সেশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং মুহসীন হলের আবাসিক ছাত্র হিসেবে ৫১১ নং কক্ষে অবস্থান করেন । ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পরপরই তিনি দেশের সেরা কলেজসমূহ ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ভর্তি সমস্যার কথা অনুধাবন করে ১৯৮৩ সাল থেকে ব্যক্তিগত উদ্যোগে মুহসীন হলেই ব্যাচে ব্যাচে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীদের ভর্তি ক্ষেত্রে সহযোগিতা শুরু করেন । এভাবে ১৯৮৫ ইং সাল পর্যন্ত হলের অভ্যন্তরে ছাত্র-ছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ব্যাপারে বিভিন্নভাবে সহায়তা করে আসছিলেন এবং অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রী কৃতিত্বের সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ভর্তির সুযোগ লাভ করে ।


পরবর্তীতে ১৯৮৬ ইং সনে যখন তিনি দেখলেন হলের অভ্যন্তরে ছাত্র-ছাত্রীদের আসন আর সংকুলান হচ্ছে না, তখনই তিনি ব্যক্তিগত উদ্যোগে মহসিন হলের পার্শ্বেই অবস্থিত নীলক্ষেতস্থ ICMAB ভবনে UCC নামকরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন ভাইস চ্যান্সেলর কর্তৃক আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন । উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ এবং বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন । এভাবে হাটি হাটি পা পা করে UCC এর শাখা প্রশাখা আজ সারা দেশে বিস্তৃতি লাভ করছে । বর্তমানে সারা বাংলাদেশে প্রায় শতাধিক শাখায় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচছু ছাত্র-ছাত্রীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠছে UCC-র আঙ্গিনা ।

UCC-র বৈশিষ্ট্য সমূহ

৩৭ বছরের ঈর্ষান্বিত সফলতাকে সঙ্গে নিয়ে ৩৮ এর কোটায় পা রেখেছে UCC পরিবার ।
  • UCC-তে সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান বিভিন্ন বর্ষে অধ্যায়নরত অভিজ্ঞ শিক্ষকমণ্ডলী ।
  • লিখিত পরীক্ষার উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে লেকচার শীট প্রণয়ন, নিয়মিত পরীক্ষা ও মডেল টেস্ট ।
  • অফলাইন ও অনলাইন ব্যবস্থায় সর্বাধিক সংখ্যক ক্লাস ও পরীক্ষা ।
  • প্রতিটি বিষয়ের উপর সপ্তাহে ১টি করে Regular Class
  • প্রতি সপ্তাহে English Solution Class
  • সকল বিষয়ের উপর সপ্তাহে ১টি Weekly Test
  • প্রতিটি বিষয়ের সকল ক্লাস সমাপ্তির পর Subject Final পরীক্ষার ব্যবস্থা।
  • মেয়েদের আলাদা /Combined ব্যাচের ব্যবস্থা।
  • সকল শাখায় একই লেকচারসীট অনুযায়ী যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষকদের ক্লাস পরিচালনা ।
  • বিশেষ কারণে ছাত্র/ছাত্রীরা ক্লাস ও পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে না পারলে পরবর্তীতে অন্য ব্যাচের সাথে ক্লাস ও পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ ।
  • ইনটেনসিভ কেয়ারে অকৃতকার্যদের মধ্য থেকে সর্বোচ্চ জিপিএ প্রাপ্তদের নিয়ে একাধিক স্পেশাল ব্যাচ গঠন ।
  • ভর্তি পরীক্ষার উপযোগী পাঠ্যসূচী নির্ধারণ এবং সে অনুযায়ী মান সম্পন্ন লেকচারসীট ও প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ।
  • সম্পূর্ণ কম্পিউটারের মাধ্যমে কোর্স প্লান, লেকচার বিন্যাস, লেকচারসীট, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ।
  • প্রতিটি ক্লাসেই ৩০ মিনিটের Class Test এবং বাকী ৯০ মিনিট লেকচারের ব্যবস্থা ।
  • সপ্তাহে ২টি English Class.
  • বিষয়ভিত্তিক সমস্যা সমাধানের জন্য সপ্তাহে ১দিন বিষয়ভিত্তিক Consulting Hour
  • ৩ লেকচার পরপর বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার অনুরূপ Evaluation Test
  • ক্লাস ও রিভিশন ক্লাস শেষে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার অনুরূপ ১২টি Model Test
  • সীমিত সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে ব্যাচ গঠন ।
  • ভর্তি পরীক্ষার পূর্ব পর্যন্ত কোচিং প্রদান ।
  • ঢাকা, জাহাঙ্গীরনগর, রাজশাহী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি উপযোগী কোচিং প্রদান । অবশিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য গুচ্ছ পদ্ধতি অনুযায়ী সকল ইউনিটের জন্য কোচিং প্রদান ।
  • ভর্তি হওয়ার সাথে সাথে UCC-কর্তৃক প্রকাশিত ১ সেট বই বিনামূল্যে প্রদান করা হয় ।

UCC-র  সাফল্যের অন্যতম হাতিয়ার

মুল্যায়ন টেস্ট কি? এবং কেন?

মূল্যায়ন টেস্ট হলো প্রতি বিষয়ে তিনটি লেকচারের উপর ১টি ১০০ নম্বরের পরীক্ষা পদ্ধতি । আমাদের এখানে কোর্স শেষে অসংখ্য স্পেশাল টেস্ট, মডেল টেস্ট থাকলেও কোর্স শুরুতেই ছাত্র-ছাত্রীরা প্রশ্নপত্র ও ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতি সম্পর্কে কোন ধারণা বা কোন কোচিং প্রতিষ্ঠানে কোনরূপ পরীক্ষামূলক টেস্ট না থাকার কারণে ছাত্র-ছাত্রীরা স্বভাবতই হতাশার অমানিশায় নিমজ্জিত থাকে । আমরা সেই চিন্তা-ভাবনা মাথায় নিয়ে ২০০০ সাল থেকে পরীক্ষামূলক এই মূল্যায়ন টেস্ট চালু করি ।

আমাদের এই পরীক্ষা পদ্ধতি ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও শিক্ষক মণ্ডলীদের কাছে অত্যন্ত কার্যকরী ও প্রশংসীত হয়ে উঠে । নির্দিষ্ট সিডিউলে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার অনুরূপ প্রশ্ন পত্র তথা আগাম ভর্তি পরীক্ষা পদ্ধতি সম্পর্কে শুরুতেই ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা যায় । আমাদের শিক্ষকবৃন্দও মূল্যায়ন টেস্ট সম্পর্কে ছাত্র-ছাত্রীদের ভয়-ভীতি ও পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করেন । এ পরীক্ষা পদ্ধতি হলো প্রতি বিষয়ে ২৫ নম্বর করে ৪টি বিষয়ে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় লেকচারের উপর ১০০ নম্বরের প্রথম মূল্যায়ন টেস্ট (গ ইউনিটে ২০x৫ = ১০০ নম্বর)। এভাবে পরবর্তীতে চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ লেকচারের পর পরই দ্বিতীয় মূল্যায়ন টেস্ট এবং সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম লেকচারের পর পরই তৃতীয় মূল্যায়ন টেস্ট । অর্থাৎ প্রতি ইউনিটে (ক, খ, গ ও ঘ) মোট চারটি ১০০ নম্বরের মূল্যায়ন টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে ।

গত ২১ বছরের পরীক্ষামূলক মূল্যায়ন টেস্টের অভিজ্ঞতা মাথায় রেখে এ বছর আমরা দক্ষতা ও বিচক্ষণতার সংগে প্রতিটি মূল্যায়ন টেস্টকে অত্যন্ত কার্যকর করার লক্ষ্যে প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রীর বাধ্যতামূলক অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে চাই । মূল্যায়ন টেস্টের প্রতিটি পরীক্ষা মডেল টেস্টের চেয়েও বেশি কার্যকরী এবং ফলপ্রসূ বলে আমরা মনে করি । আমাদের এই মূল্যায়ন টেস্ট পদ্ধতিটি ছাত্র-ছাত্রীদের তীব্র প্রতিযোগিতার মাঝেও টিকে থাকার এক ভিন্ন কৌশল মাত্র । যা কোচিং জগতে একমাত্র UCC-তেই সীমাবদ্ধ রয়েছে । এভাবে প্রতি বছরই আমরা সুপ্ত প্রতিভাধারী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে নতুন কৌশল নিয়ে অগ্রসর হতে চাই । ছাত্র-ছাত্রীদের সাফল্যই আমাদের একমাত্র কাম্য । বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক ঘোষণা অনুযায়ী MCQ- র পাশাপাশি লিখিত পরীক্ষাও অনুষ্ঠিত হয়। গত বছর থেকে শুরু হওয়া গুচ্ছ পদ্ধতির নতুন সিলেবাস অনুযায়ী আমাদের কার্যক্রম চলবে ।

Intensive Care program

UCCকেবল একটি কোচিং সেন্টার নয় , এটি আমাদের সফল শিক্ষা পরিবার ।

UCC-র অনেকগুলো আধুনিক ও যুগান্তকারী পদক্ষেপের মধ্যে "INTENSIVE CARE PROGRAMM” অন্যতম । UCC- তে এ প্রোগ্রাম চালু হয়েছে ১৯৯৫ সাল থেকে । বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সাধারণ Subject এ চান্স পাওয়ার চেয়ে তুলনামূলকভাবে একটি ভাল Subject এ চান্স পাওয়া তথা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার মেধা তালিকায় প্রথম ২০ এর মধ্যে মেধাস্থান লাভ করাই এ প্রোগ্রামের মূল উদ্দেশ্য। এ প্রোগ্রামটি General কার্যক্রমের বাইরে অতিরিক্ত একটি বিশেষ পদক্ষেপ ।

এ প্রোগ্রামের বৈশিষ্ট্য:

  • প্রতি ইউনিটে আসন সংখ্যা ২৫০ জন ( ক ইউনিটে ২৫০ জন, খ ইউনিটে ২৫০ জন, গ ইউনিটে- ২৫০ জন এবং - ইউনিটে ২৫০ জন, সর্বমোট = ১০০০ জন)।
  • এ প্রোগ্রামটি UCC-র পরিচালক ও সেরা অভিজ্ঞ শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ।
  • শুধু এ প্রোগ্রামটির জন্য লেকচার সিডিউল, লেকচারসীট, পরীক্ষার সীট ইত্যাদি যাবতীয় Course Materials স্পেশালভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিজ্ঞ শিক্ষক কর্তৃক প্রণীত ।
  • প্রতিটি ক্লাসেই কমপক্ষে ৫০ থেকে ১০০ নম্বরের বিশেষ পরীক্ষার ব্যবস্থা এবং প্রতিটি ক্লাসেরই সময়সীমা ন্যূনতম ৩ ঘন্টা ।
  • নিয়মিত ক্লাসের পাশাপাশি INTENSIVE CARE PROGRAM এর আওতাভুক্ত ক্লাসসমূহ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার পূর্ব পর্যন্ত চলবে ।

নির্বাচন পদ্ধতি:

H.S.C-পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সাথে সাথেই প্রতিটি ইউনিট থেকে নির্দিষ্ট সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী বাছাই করার উদ্দেশ্যে অন্যান্য বারের মত এবারও ঢাকাস্থ তেজগাঁও কলেজ কিংবা অন্য কলেজ কেন্দ্রে UCC-র সারা বাংলাদেশের শাখাসমূহের মধ্যে একই সময়ে এবং একই প্রশ্নে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার অনুরূপ স্পেশাল Model Test (MCQ+লিখিত) নেয়া হবে । প্রতিটি ক্লাস টেস্টের ফলাফল ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাসে উপস্থিতি ও স্পেশাল Model Test এর ফলাফলের সমন্বয়ে গঠিত মেধার ভিত্তিতে ছাত্র-ছাত্রী বাছাই করা হবে । এ ক্ষেত্রে আমরা SSC ও HSC পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনায় আনবো না । UCC-র ছাত্র-ছাত্রীদের প্রত্যাশা পূরণ তথা সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে বরাবরই UCC প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ।

N.B: INTENSIVE CARE PROGRAM এ অন্তর্ভুক্তির ব্যাপারে কোন প্রকার তদবির বা সুপারিশ গ্রহণযোগ্য নয় ।

 

 

 

 

Advanced Batch-এ ভর্তির সুবিধা

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতি এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে সর্বাধিক সাফল্যের প্রত্যাশায় এইচএসসি-২০২৩ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নিয়ে শুরু হচ্ছে ।
  • Single Course Fee Double Course সম্পন্ন করার সুযোগ ।
  • অভিজ্ঞ ও জনপ্রিয় শিক্ষকদের ক্লাস করার সুযোগ ।
  • সর্বাধিক সাফল্যে নিশ্চিন্তে সর্বোচ্চ সার্ভিসের নিশ্চয়তা ।
  • এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল এবং ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক প্রস্তুতি নিশ্চিত করবে ।
  • পছন্দসই সময় নির্বাচন ও ১ম ব্যাচে তোমার আসন নিশ্চিতকরণ ।
  • Advanced Batch-এর ক্লাসগুলো এইচএসসি পরীক্ষার পূর্বেই এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতি নিয়ে সহায়তা করবে যা তোমাকে পৌঁছে দেবে তোমার স্বপ্নের গন্তেব্যে!

 

আমাদের সহপ্রতিষ্ঠান